১১০ কোটি টাকার হৃতিকের বাড়ি !

0
39

হৃতিক রোশন এমন একটি বলিউড তারকা যিনি ভোগ ইন্ডিয়ার ‘কভার স্টোরি’ তৈরি করেছেন তার বাড়ি দিয়ে । মিহিকা আগরওয়াল হৃতিকের বাড়ি নিয়ে লিখেছেন। এবং ছবিগুলি তোলেন সুইডিশ ফটোগ্রাফার বায়রন ওয়াল্যান্ডার। এই বৈশিষ্ট্যটির সাথে ব্যবহৃত ছবিগুলি হৃতিক রোশন, সুজন খান, ভোগ ইন্ডিয়া এবং বজর্ন ওয়াল্যান্ডারের ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া হয়েছে।

হৃতিকদের ডাইনিং

হৃতিক ও সুজন বিচ্ছেদের পরেও ভাল বন্ধু। বিয়ের ১৩ বছর পরে ২০১৩ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছিল। এমনকি বিচ্ছেদ হওয়ার পরেও তারা নিয়মিতভাবে তাদের ছেলেমেয়েদের সাথে ভারতের বাইরে ভ্রমণ করে।

দাবা খেলছে ছেলে

সুজান তাদের বাচ্চাদের রিহানা এবং রিদানের সাথে ছবিগুলির জন্য পোজ দিয়েছেন। বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরেও কীভাবে সুসম্পর্ক এবং বন্ধুত্ব অক্ষত থাকে সে সম্পর্কে ফটো তোলা হয়েছিল বলেও খবর পাওয়া গেছে।

বসার ঘর

করোনার মহামারীর শুরুতে হৃতিক তার দুই ছেলের সাথে একটি নতুন বাড়িতে পাড়ি জমান। এবং সুজান পুরো সময় তাদের সাথে ছিল।

লকডাউনে সুজান ছেলেদের সঙ্গেই ছিলেন

মুম্বাইয়ের জুহুর লিংক রোডে হৃতিকের বাড়ি। একটি বিশাল অ্যাপার্টমেন্টের ১৫ এবং ১৬ তলা বিশিষ্ট ডুপ্লেক্স। কিছু দিন পরে তিনি ১৪ তলা কিনেছিলেন।

দেয়ালে ঝুলছে চার্লি, বিছানায় কফি খাচ্ছেন সুজান, ছবিটি তুলেছেন হৃতিক নিজে আর সুজানকে না জানিয়েই পোস্ট করেছেন

তিনি ডুপ্লেক্সটি ৭৫ মিলিয়ন রুপিতে কিনেছিলেন। এটি ২৬ হাজার ৫৩৪ বর্গফুট। এবং ১৪ ফ্লোরের দাম ৩০ কোটি রুপি। এটা বেশ ছোট। ১১ হাজার ১৬৫ বর্গফুট। সব মিলিয়ে হৃতিকের বর্তমান বাড়িটির মূল্য ৯৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। অর্থের দিক দিয়ে এটি ১১০ কোটি টাকা। এটিতে ১০ টি গাড়ি পার্কিংয়ের স্থান রয়েছে।

হৃতাকের বাড়ির অন্দর থেকে বাইরের ভিউ

আরব সাগরের কিছু অংশ হৃতিকের বাড়ির বারান্দা থেকে দেখা যায়। হৃতিক তার বাচ্চাদের নিয়ে বারান্দায় সময় কাটাতে ভালোবাসেন।

আছে খেলাঘর

হৃতিকের বাড়ির অভ্যন্তরটি সাজিয়েছেন বিখ্যাত ভারতীয় অভ্যন্তর ডিজাইনার অভিনেশ শাহ কয়েকটি শোবার ঘর, দুটি ড্রয়িং রুম, ডাইনিং, ড্রেসিং কাম মেকআপ রুম, গ্রন্থাগার, সভা সভা, বারান্দা ছাড়াও হৃতিকের বাড়িতে একটি জিমনেসিয়াম এবং একটি বিশাল খেলার মাঠ রয়েছে।

পোষা কুকুরের সঙ্গে দুই ছেলে

প্লেরুমে একটি ফুটবল টেবিল, বিলিয়ার্ড টেবিল এবং এক কোণে একটি ভেন্ডিং মেশিন এবং ঝুলন্ত শিশুদের জন্য একটি বানর বার রয়েছে। চকোলেটগুলি ভেন্ডিং মেশিন থেকে বেরিয়ে আসে।

এখানে বসে চিত্রনাট্য পড়েন হৃতিক

সেলিব্রিটিদের তাদের বাড়ির অভ্যন্তরে বিভিন্ন কম্পন থাকে। সহস্রাব্দ, মিনিমালিস্ট, বিলাসবহুল, ইউরোপীয় আর্টফর্ম বা আধুনিক। তবে হৃত্বিকের বাড়িতে এই সমস্ত জিনিস নয়, তাদের নিজস্ব পছন্দ এবং সান্ত্বনা প্রাধান্য পেয়েছে। তবে ঘরের অভ্যন্তরটি এমনভাবে করা হয়েছে যাতে কোনও দিক থেকে আলো বাধা না হয়।

একপাশে একটা কোজি চেযার

হৃতিক ভোগ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে হৃতিক বলেছিলেন, “বাড়িটি ইন্টিরিওর ডিজাইনের সমস্ত নিয়ম অনুসরণ করে না। হোম এমন এক জায়গা যেখানে আমি আমার জুতো খুলে আরাম করতে পারি যেখানে আমি থাকতে পারি ‘”

এখানে আরাম করে বসেন হৃতিক

হৃতিকের ঘরের দেয়ালে ছোট ছোট ‘কোটেশন’ লেখা আছে। যা জীবনকে বাঁচিয়ে রাখে। শয়নকক্ষ এবং বারান্দার এক কোণে হৃতিক সাইমনের চেয়ার এবং রোচে ববির সোফায় নামল। হৃতিক হাতে স্বাস্থ্যকর পানীয় নিয়ে এখানে বসে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত দেখে।

ছবিগুলো খুবই স্পেশাল

‘মহেঞ্জোদারো’ সিনেমার সেট থেকে অনুপ্রাণিত বিশাল গালিচা। নীল রঙ প্রচুর। হৃত্বিকের কথায়, ‘একদিন সেটে আমি বিভিন্ন রঙিন ছবি তুলছিলাম। তারপরে রঙটি মনে করিয়ে দেয়। হুবুহু সেরুলিয়ান (গাড় নীল), না ফিরোজা (ফিরোজা নীল)। দুটোর মধ্যে একটা রঙ আছে। ‘

আরেকটি বসার ঘর

জয়পুর থেকে কার্পেট অর্ডার করার জন্য তৈরি করা হয়। বসার ঘরে এক জায়গায় বেশ কয়েকটি ছবি ঝুলানো। ছবিগুলি সম্পর্কে Hত্বিক বলেছিলেন, “ছবি যতটা গুরুত্বপূর্ণ তত গুরুত্বপূর্ণ রাখুন।”

দেয়লে টাঙানো বিশ্বের মানচিত্র

হৃতিকের ডাইনিং টেবিলে কাঠের ছয়টি চেয়ার। এবং টেবিলটি গ্লাস দিয়ে তৈরি। একদিকে প্রাচীর হ’ল বিশ্বের মানচিত্র। তারা এটি তাকান এবং কোথায় অবকাশে যাবেন তা স্থির করে। কিছু উজ্জ্বল রঙিন চেয়ারগুলি ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। সংক্ষেপে এটি হৃতিকের বাড়ি।

হৃতিকের বাড়ি ভর্তি এমন ছোট ছোট নানা স্যুভেনিরে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here