সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন

আসামের ডব্লিউ বি এর পর এবার তিস্তার পানি নিয়ে সিদ্ধান্ত বললেনঃ সিকি আনোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • সময় কাল : শনিবার, ২০ মার্চ, ২০২১
  • ১৪১ বার পড়া হয়েছে।
Spread the love

ভারত তার পশ্চিমবঙ্গ ও আসাম রাজ্যের নির্বাচনের পরে তিস্তার পানি-ভাগাভাগির চুক্তি বাস্তবায়ন সহ কিছু সিদ্ধান্ত নেবে।

বুধবার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিআইপি লঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে ভারতের সাথে পানি সেক্রেটারি পর্যায়ে বৈঠকের বিশদ বিবরণ দিয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়েরর সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার এ মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার দিল্লিতে যৌথ নদী কমিশনের কাঠামোর আওতায় বাংলাদেশ ও ভারতের পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়েরর  মধ্যে সচিব-স্তরের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আনোয়ার বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন এবং তার সমমনা ভারতীয় পানিসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক পঙ্কজ কুমার বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।

ঢাকা বিমানবন্দরের ভিআইপি লঞ্জে দিল্লী পৌঁছানোর পর সংবাদ সম্মেলনের সময় আনোয়ার বলেন, ভারত তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন সহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ ও আসামের নির্বাচনের পরে সিদ্ধান্ত নেবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। একটি প্রেস রিলিজ।

“কুশিয়ারা নদী থেকে রহিমপুরের পাম্প হাউসে সেচ দেওয়ার জন্য পানির ইস্যুতেও অগ্রগতি হয়েছে। মহানন্দা নদীর পানির স্তর হ্রাস হওয়ায় যৌথ জরিপ পরিচালনার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে, ”আনোয়ার বলেন।

তিনি বলেন, খুব ইতিবাচক ও ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।

এক প্রতিবেদকের প্রশ্নের জবাবে আনোয়ার বলেন, “বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে কর্মসূচিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অতিথি থাকবেন। তাছাড়া, পশ্চিমবঙ্গ ও আসামে তাদের সামনে নির্বাচন আছে। তাই, আমি মনে হয় না চুক্তি সম্পর্কে এখন কিছু থাকবে। ”

বাংলাদেশ-ভারত সচিব-স্তরের বৈঠকটি আগস্ট ২০১৯-এ অনুষ্ঠিত হয়েছিল যদিও ভারতীয় সচিবকে গত বছর আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, করোন ভাইরাস মহামারীর কারণে এটি বিলম্বিত হয়েছিল। সুতরাং ১৬ মার্চ নয়াদিল্লিতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

নদী সংরক্ষণে দুই দেশ সম্মত হয়েছে উল্লেখ করে আনোয়ার বলেন, “প্রথমে নদীর প্রাকৃতিক প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে, তারপরে পানির বন্টন করতে হবে। দু’জনের মধ্যে আরও ভাল বোঝাপড়া নিশ্চিত করতে জরিপ, পরিদর্শন, তথ্য সংগ্রহ ইত্যাদি যৌথভাবে করা হবে দেশ।

“ছয়টি অভিন্ন নদীর তথ্য বিনিময় এখন শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এটি শীঘ্রই একটি কাঠামোর চুক্তি হবে। ৫৪ টি অভিন্ন নদী পর্যায়ক্রমে আলোচনা করা হবে, ”পানি সম্পদ সিনিয়র সচিব জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।
Design & Developed by Online Bangla News
themesba-lates1749691102