শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
ভোর ৫:৩৪

আজ শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ১১ আশ্বিন, ১৪২৭

বিজ্ঞাপন বা যে কোন প্রয়োজনে যোগাযোগ করুনঃ +88 01880 16 23 24

Home অন্যান্য আত্মহত্যা কখনোই সমস্যার সমাধান নয়

আত্মহত্যা কখনোই সমস্যার সমাধান নয়

আত্মহত্যা জীবনের সমস্যার জন্য সমাধান হতে পারেনা, সুতরাং জীবনবোধ নিয়ে ইতিবাচক চিন্তাই আত্মহত্যা থেকে মুক্তির সমাধান। আত্মহত্যা চরম কোনো ঘটনা থেকে বাঁচতেই কি মানুষ এই পথ বেছে নেয়? পৃথিবীর যে অপরূপ সৌন্দর্য, মানুষে মানুষে যে ভালোবাসা, নিজের ইতিবাচক আকাঙ্খা তার মনে কি এতটুকুও দাগ কাটে না? যে যাই বলুন নিজেকে গুটিয়ে নেওয়ার পথ কোনো গ্রহণযোগ্য পথ হতে পারেনা। আত্মহত্যা নয়, জীবনের সন্ধানই তাকে দেয় মুক্তির পথ। আমাদের সমাজে একজন ছেলের চেয়ে মেয়েদের চলার পথ কঠিন। ঘরে-বাইরে তাকে নানাভাবে বঞ্চনা-বৈষম্যের শিকার হতে হয়। উত্ত্যক্ত, স্বামী-শ্বশুরবাড়ির নির্যাতন, ঘরে বা কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বা অভিমানে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় অনেকেই। বিষণ্নতার ফলেই আত্মহত্যার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। এ ছাড়া চরম অভিমান, হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলাসহ বিভিন্ন হ্যালুসিনেশন, ডিলিউশন এবং নেশার ঘোরে অনেক সময় ব্যক্তি আত্মহত্যা করে থাকে। মনোরোগ এবং চাপ ছাড়াও বিরহ-বেদনা, দারিদ্র্য, যৌতুকপ্রথা, ধর্ষণ, অপমান—এসব কারণে অনেকে এই পথ বেছে নেয়। এ ক্ষেত্রে শরীরে সিরোটনিন, ডোপামিন, নন-এড্রেনালিনের ঘাটতি পাওয়া যায়। অপরাধ বিজ্ঞানীরা বলেছেন, সমাজের কাছ থেকে ব্যক্তি যখন তার প্রাপ্তি হতে বঞ্চিত হয় এবং দারিদ্রতা ও নেশা যখন তাকে ঘিরে ধরে তখনই মূলত ব্যক্তি অত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। উইকিপিডিয়াতে আত্মহত্যা সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, আত্মহত্যা বা আত্মহনন (ইংরেজি: Suicide) হচ্ছে কোনো ব্যক্তি কর্তৃক ইচ্ছাকৃতভাবে নিজের জীবন বিসর্জন দেয়া বা স্বেচ্ছায় নিজের প্রাণনাশের প্রক্রিয়াবিশেষ। ল্যাটিন ভাষায় সুই সেইডেয়ার থেকে আত্মহত্যা শব্দটি এসেছে, যার অর্থ হচ্ছে নিজেকে হত্যা করা। যখন কেউ আত্মহত্যা করেন, তখন জনগণ এ প্রক্রিয়াকে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে। ডাক্তার বা চিকিৎসকগণ আত্মহত্যার চেষ্টা করাকে মানসিক অবসাদজনিত গুরুতর উপসর্গ হিসেবে বিবেচনা করে থাকেন। ইতোমধ্যেই বিশ্বের অনেক দেশেই আত্মহত্যার প্রচেষ্টাকে এক ধরনের অপরাধরূপে ঘোষণা করা হয়েছে। অনেক ধর্মেই আত্মহত্যাকে পাপ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যিনি নিজেই নিজের জীবন প্রাণ বিনাশ করেন, তিনি – আত্মঘাতক, আত্মঘাতী বা আত্মঘাতিকা, আত্মঘাতিনীরূপে সমাজে পরিচিত হন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে দেশে প্রতিবছর ১০ হাজার ১৬৭ জন আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। ২০১২ সালের হিসাব বলছে, বাংলাদেশে এক লাখ মানুষের মধ্যে ৭ দশমিক ৮ জন আত্মহত্যা করে। এটি খুব উদ্বেগজনক চিত্র বটে। সারা দুনিয়ায় বছরে আট লাখ মানুষ আত্মহত্যা করে। আর আত্মহত্যার চিন্তায় মনোরোগে ভোগে ১০ কোটি মানুষ। বিষয়টি হেলাফেলার নয়। আত্মহত্যা চিন্তার বেঘোরে থাকা মানুষদের মধ্য থেকেই অনেকে সচেতনতার অভাব, পরিবারের অবহেলার জন্য এই পথ বেছে নেয়। সচেতনতাই হলো এই মনোব্যাধির প্রধান ওষুধ। আত্মহত্যা কোনো সমস্যার সমাধান নয়। জীবনে চলতে হবে সাহসিকতার সঙ্গে, নির্ভয়ে, নির্ভারে। ছোট এই জীবনটাকে নিজ হাতে আরও ছোট করা কেন? কষ্টকর করা কেন? মনের আকাশে যদি কালো মেঘ উঁকি দেয়, তখন আত্মবিশ্বাস জাগিয়ে তোলা জরুরি। চারপাশের সমস্যাগুলোকে ছোট মনে করে নিজের জন্য বাঁচতে হবে। অন্যের জন্য নিজে কেন আনন্দ থেকে বঞ্চিত হবেন? তিনিই আসল মানুষ, যিনি সমস্যার মধ্যে থেকে তার মোকাবিলা করেন। পায়ের তলার মাটি শক্ত করা প্রয়োজন। অন্যের ঘাড়ে বোঝা হয়ে না চেপে নিজের প্রতিষ্ঠার দিকে নজর দেওয়া উচিত ছেলে মেয়ে নির্বিশেষে। আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কোয়ালিটি সময় কাটানো। নিয়মিত ব্যায়াম, সাঁতার কাটা, মুক্তমন চিন্তা, বইপড়া তথা আত্মিক উন্নতি সাধন করতে হবে। কোনো সমস্যা নিয়ে বিশেষ ঝামেলায় পড়লে মনের বিভ্রমে ভুগলে কাছের বিশ্বস্ত কারও পরামর্শ নিন। সমাধানের উদ্দেশ্য নিয়ে আলোচনা করুন। তিলকে তাল করা বা কাদাপানি ঘোলা করে এমন পরিস্থিতি বা লোকজন এড়িয়ে চলুন। পরিবারের সদস্যদের যা করণীয় আত্মহত্যার প্রবণতা যাদের মধ্য দেখা যায়, তাদের প্রতি সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দিন। তাকে বোঝার চেষ্টা করুন। বাঁকা কথা, নেতিবাচক মন্তব্য, মুখ সরিয়ে নিলে নিজেকে এ পৃথিবীতে একা ভাবতে পারে। তার কেউ নেই—এ চিন্তা যেন মনের মধ্যে গেঁথে না বসে। তাই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিন। মেয়েটিকে আত্মহত্যার পথ থেকে সরিয়ে আনতে পাছে লোকে কিছু বলে, সামাজিক মর্যাদাহানি এ রকম পুরোনো চিন্তা-চেতনা থেকে পরিবারের সদস্যদেরও বের হয়ে আসতে হবে। জীবনতো একটাই চলে গেলে সব শেষ। সুতরাং জীবনের সহজ ও কঠিন পরিস্থিতিতে নিজের মনোবল ও বোধশক্তি চাঙ্গা রাখার কোন বিকল্প নেই। লেখক রবিউল ইসলাম রবি শিক্ষক ও গণমাধ্যমকর্মী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -sidebar sqr ad

Most Popular

পিকাপের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী

জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায় ৩য় বর্ষে অধ্যায়নরত এই ছাত্রী নিতী পড়াশোনার পাশাপাশি একটি পার্ট টাইম জব করতো। জব থেকে নিজের বাসা ভাটারায় ফেরার...

জোহরের নামাজ চার রাকআত হইবার কারণ।

জোহরের নামাজ হযরত ইব্রাহীম আলাইহিসসালাম চারি কারণে চারি রাকআত নামাজ পড়িয়াছিলেন। ১ম রাকআত - আল্লাহ তায়ালা তাঁহার কার্যে রাজী থাকার জন্য, ২য় রাকআত -...

ফজরের নামাজ দুই রাকআত হওয়ার কারণ!

প্রশ্নঃ- নামাজসমূহ ২/৩/৪ রাকআত হইবার কারণ কি? উত্তরঃ- হযরত আদম আলাইহিসসালাম বেহেশত হইতে দুনিয়ায় পতিত হইবার পর যখন রাত্রির অন্ধকার আসিয়া উপস্থিত হইল, তিনি...

কক্সবাজারে র‌্যাবের হাতে ৮০হাজার ইয়াবা ও নগদ ২৭ লক্ষাধিক টাকাসহ দুই মাদক কারবারী আটক

কক্সবাজারে র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ৮০হাজার ইয়াবা ও মাদক বিক্রির ২৭ লক্ষাধিক টাকাসহ দুই মাদক কারবারীকে আটক করেছে। সুত্র জানায়, ১৭ সেপ্টেম্বর রাতের...

Recent Comments