শুক্রবার, অক্টোবর ২৩, ২০২০
রাত ১২:১৫

আজ শুক্রবার ২৩ অক্টোবর, ২০২০ | ৭ কার্তিক, ১৪২৭

বিজ্ঞাপন বা যে কোন প্রয়োজনে যোগাযোগ করুনঃ +88 01880 16 23 24

Home অপরাধ চাকরির প্রলো’ভনে দুবাই নিয়ে যা করাতেন তরুণীদের দিয়ে

চাকরির প্রলো’ভনে দুবাই নিয়ে যা করাতেন তরুণীদের দিয়ে

দুবাইতে ড্যান্স বারে চাকরির প্রলো’ভন দেখিয়ে হোটেলগুলোতে নিয়ে বাধ্য করা হতো দেহ ব্যবসায়, রাজি না হলেই মাসের পর মাস চলতো নি’র্যাতন। এমন আরও লোমহর্ষক ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন দুবাইয়ের বিভিন্ন হোটেল থেকে উ’দ্ধার হওয়া বাংলাদেশি তরুণীরা।

জানা গেছে, ঢাকায় একাধিক ড্যান্স শেখানোর প্রতিষ্ঠান রয়েছে একটি পাচার চক্রের। সেখান থেকেই ড্যান্স শেখানোর নামে মে’য়েদের সংগ্রহ করে পাচার করা হয় দুবাইয়ে।পতিতাবৃত্তির বিনিময়ে বিপুল টাকা অর্জিত হলেও নির্যাতিতাদের অনেকের ভাগে তা জুটে না।

কেউ কেউ মাস শেষে অল্প টাকা পান। এ রকম সহস্রাধিক তরুণীকে পাচার করেছে আজম খান চক্র। এ চক্রটি দালালদের মাধ্যমে তরুণীদের প্রলো’ভন দেখিয়ে বিদেশে নিয়ে যায়। তারপরই তাদের জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। তেমনি নি’র্যাতনের শিকার এক তরুণী জানান, প্রতিবেশী এক নারীর মাধ্যমে টিএসসিতে পরিচয় হয় নির্মল দাস নামে এক যুবকের সঙ্গে।

নির্মল তাকে জানান, দুবাইয়ে ভালো চাকরি আছে। বেতন হবে প্রায় অর্ধলাখ টাকা-এমন প্রলো’ভন দেখিয়ে ওই তরুণীকে নারায়ণগঞ্জের জালকুড়ি পাসপোর্ট অফিসে নিয়ে যান। সেখানে পাসপোর্ট করার জন্য আবেদন করা হয়।প্রায় দুই সপ্তাহ পর চাকরির আলোচনার কথা বলে নির্মল ফোনে ডেকে নিয়ে যায় শান্তিনগরে।

সেখানে পরিচয় হয় নাজিম খানের সঙ্গে। আজম খানের ছোট ভাই নাজিম। গাড়িতে বসেই ওই তরুণীর সঙ্গে কথা বলেন সেদিন। তিনি ওই তরুণীকে জানান, দুবাইয়ে তাদের কয়েকটি হোটেল আছে। সেখানে কাজ করতে হবে। কাজ হচ্ছে গেস্টদের খাবার পরিবেশন করা। হোটেল ব্যবসা যাই হোক মাস শেষে নিয়মিত ৫০ হাজার টাকা পাবেন।

তার কিছুদিন পরে ফোনে নাজিম জানান, ২৩ ডিসেম্বর তার ফ্লাইট। বিমানবন্দরে যাওয়ার পথে গাড়িতে পাসপোর্ট, ভিসা, বিমানের টিকিট দেয় নাজিম। ওই সময়ে ওই তরুণীর মায়ের বিকাশ নম্বরে দুই দফায় ৪০ হাজার টাকা পাঠান নাজিম। দুবাইয়ে নিয়ে যাওয়ার পর ওই তরুণীর কপালে জোটে ব’ন্দি জীবন। রুমের বাইরে তালা। প্রয়োজন হলেই রুম খুলে ড্যান্সবারে নিয়ে যাওয়া হতো। সেখানে ম’দে বুঁদ হয়ে থাকা ব্যক্তিদের সঙ্গে নাচতে হতো।

তারপর যখন তখন রুমে পাঠানো হতো গেস্ট। কখনো কখনো এক হোটেল থেকে আরেক হোটেলে নিয়ে যাওয়া হতো। প্রতিটি হোটেল অন্তত ২০ জন করে তরুণী রয়েছেন এই চক্রের। তাদের প্রত্যেককে দিয়েই এ কাজ করানো হয়। যারা স্বতপ্রণোদিত হয়ে নাচ করে তাদের ভাগ্যে অল্প-স্বল্প টাকা জুটলেও বেশিরভাগ তরুণীকেই কোনো টাকা দেয়া হয় না। হোটেলগুলো পরিচালনা করতো আজম খান। বারে, লবিতে তার দেখা মিলতো।

নি’র্যাতনের শিকার কয়েকজন তরুণী জানান, করো’নার কারণে গত এপ্রিল মাস থেকে হোটেল, বার বন্ধ হয়ে যায়। এরপর নিয়মিত খাবার না পেয়ে ক’ষ্টে দিনপার করছিল তারা। এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিসের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে কল দিয়ে অ’ভিযোগ করেন তারা। পরে হোটেল থেকে কয়েকজন তরুণীকে উ’দ্ধার করা হয়। ১৬ জুন দেশে ফেরেন তাদের মধ্যে কয়েকজন।

এসব তথ্যের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির নানুপুরের আজম খানসহ এ চক্রের আল আমিন হোসেন ডায়মন্ড, স্বপন হোসেন, নাজিম, এরশাদ, নির্মল দাশ, আলমগীর, আমান, শুভসহ অ’জ্ঞাতদের বি’রুদ্ধে লালবাগ থা’নায় মানবপাচার আইনে মা’মলা করেছে সিআইডি।

সিআইডির অ’তিরিক্ত পু’লিশ সুপার রাজীব ফারহান জানান, এ চক্রের টার্গেট থাকতো কম বয়সী সুন্দরী নারী। তাদের মিথ্যা প্রলো’ভন দিয়ে ভ্রমণ ভিসায় দুবাই নিয়ে যেত। সেখানে যৌ’ন নি’র্যাতন করা হতো। এক ধরনের দাসত্বের জীবন যাপন করতে হতো পাচার হওয়া নারীদের। টাকাও দেয়া হতো না। উল্টো মা’রধর করা হতো। এ চক্রের গ্রে’ফতার তিনজনের মধ্যে আজম খান ও আল আমিন হোসেন ডায়মন্ড অ’প’রাধ স্বীকার করে আ’দালতে জবানব’ন্দি দিয়েছে। অন্যদেরও গ্রে’ফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

জানা গেছে, দুবাইয়ে মেট্টো নাইট ক্লাব, ঢলিউড লাইভ ইন্ডিপেন্ডেন্ট রেস্টুরেন্ট, (হোটেল সিটি টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায়), গুলশান লাইভ ইন্ডিপেন্ডেন্ট রেস্টুরেন্ট ও রয়েল ফরচুন নামে চারটি হোটেল রয়েছে আজম খানের। এই চক্রে দেশি ছাড়া পা’কিস্তানিসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক রয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -sidebar sqr ad

Most Popular

কোটচাঁদপুর উপজেলার ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের কর্মির উপর অতর্কিত হামলা

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সলেমানপুর ৪নং ওয়ার্ডের সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম (রনি) অতর্কিত হামলার শিকার হয়েছেন। তিনি জানান, কোটচাঁদপুর পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সহিদুজ্জামান...

পিকাপের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী

জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায় ৩য় বর্ষে অধ্যায়নরত এই ছাত্রী নিতী পড়াশোনার পাশাপাশি একটি পার্ট টাইম জব করতো। জব থেকে নিজের বাসা ভাটারায় ফেরার...

জোহরের নামাজ চার রাকআত হইবার কারণ।

জোহরের নামাজ হযরত ইব্রাহীম আলাইহিসসালাম চারি কারণে চারি রাকআত নামাজ পড়িয়াছিলেন। ১ম রাকআত - আল্লাহ তায়ালা তাঁহার কার্যে রাজী থাকার জন্য, ২য় রাকআত -...

ফজরের নামাজ দুই রাকআত হওয়ার কারণ!

প্রশ্নঃ- নামাজসমূহ ২/৩/৪ রাকআত হইবার কারণ কি? উত্তরঃ- হযরত আদম আলাইহিসসালাম বেহেশত হইতে দুনিয়ায় পতিত হইবার পর যখন রাত্রির অন্ধকার আসিয়া উপস্থিত হইল, তিনি...

Recent Comments